নৈরাজ্য বন্ধ করুন-নির্বাচন স্থগিত করুন

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল অলি আহমদ, বীর বিক্রম (অবঃ), এম.পি এক বিবৃতিতে বলেছেন, বাংলাদেশের সর্বত্র আজ যুদ্ধ অবস্থা বিরাজ করছেস্বাভাবিক জীবন যাত্রা ব্যাহতআওয়ামী লীগের ক্যাডাররা সমগ্র দেশে আইনজীবি, সাংবাদিক, পেশাজীবিসহ ১৮ দলীয় ঐক্যজোটের নেতাকর্মী এবং সমর্থকদের উপর অস্ত্র এবং লাঠিসোটা নিয়ে আক্রমন করেছে

তিনি বলেন, সমগ্র দেশ আতঙ্ক এবং অনিশ্চয়তার মধ্যে নিমজ্জীতব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ, উত্পাদন ব্যাহত, রেমিটেন্স সর্ব নিম্ন, জনশক্তি রপ্তানীতে বিপর্জয় আমদানী-রপ্তানী প্রায় বন্ধদেশের অর্থনীতিতে চরম বিপর্যয়সর্বত্র চলছে রাজনৈতিক বাণিজ্য

কর্নেল অলি সরকারের প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেন, কি কারনে সরকার নিয়ন্ত্রীত আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সরকারি ক্যাডার বাহিনীর সদস্যরা ষোলকোটি মানুষের উপর এই ধরনের নির্যাতন এবং হামলা চালাচ্ছে? প্রেসক্লাব ও হাইকোর্টের অভ্যন্তরে জল কামান এবং অস্ত্র সস্ত্র লাঠি সোটা নিয়ে আইনজীবিদের আক্রমন করেছে? বিরোধী দলীয় নেত্রী এবং সমগ্র দেশবাসীকে অবরম্নদ্ধ করে রাখা হয়েছে?

তিনি বলেন, দেশে এক ধরনের অঘোষিত জরুরি অবস্থা চলছেবিগত দিনে বাংলাদেশে কখনো এই ধরনের অবস্থা বিরাজমান ছিল নাদেশের মানুষের প্রতি দয়া করুনগনতন্ত্রকে সঠিক পথে পরিচালিত হতে সাহায্য করুনপ্রহসনের নির্বাচন বন্ধ করুনআলাপ আলোচনার মাধ্যমে নতুন ভাবে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পদক্ষেপ নিন

কর্নেল অলি বলেন, সরকারি দলের নেতাকর্মীরা বলছেন একটা গুলি চললে দশ গুলি চলবে, হাতে লাঠি সোটা নিয়ে বের হয়ে বিরোধী দলের নেতাকর্মী এবং সমর্থকদের প্রতিহত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছেভেবে দেখুন দেশের ষোল কোটি মানুষকে কিভাবে সামাল দিবেনদেশের মানুণষকে শানি্ত এবং নিরাপত্তা দিনবিরোধী দলের নেতা কে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্তি দিন

 
  ©Liberal Democrative party,LDP of Bangladesh (Official Website)